Friday , August 23 2019
Home / ধর্ম ও দর্শন / বেসরকারি হজ প্যাকেজ মূল্য ৩ লাখ ৪৫ হাজার ৮০০ টাকা

বেসরকারি হজ প্যাকেজ মূল্য ৩ লাখ ৪৫ হাজার ৮০০ টাকা

চলতি বছরের জন্য বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় এবার হজের সর্বনিম্ন খরচ জনপ্রতি ৩ লাখ ৪৫ হাজার ৮০০ টাকা নিধারণ করে প্যাকেজ ঘোষণা করেছে হজ এজেন্সিজ অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (হাব)। শনিবার রাজধানীর নয়াপল্টনের হোটেল ভিক্টোরীতে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এই প্যাকেজ ঘোষণা করা হয়।সংবাদ সম্মেনে হাবের মহাসচিব এম. শাহাদাত হোসাইন তসলিম বলেন, হজে যেটুকু ভোগান্তি মধ্যস্বত্তভোগিদের কারণেই হয়, হজ এজেন্সির কারণে নয়। তিনি বলেন, সরকার এ বছর বিমান ভাড়া ১০ হাজার ১৯১ টাকা কমিয়ে হাবের দাবির যৌক্তিকতা প্রমাণ করেছে। এটা প্রশংসনীয় উদ্যোগ। তবে হাব মনে করে, হজযাত্রীদের বিমান ভাড়া স্বাভাবিক সময়ের দেড়গুণ হওয়া উচিত। তিনি আরো বলেন, বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের মতো সৌদি এরাবিয়ান এয়ারলাইন্সের হজযাত্রীদের টিকিটও সরাসরি হজ এজেন্সির কাছে বিক্রি করতে সরকার হস্তক্ষেপ করবে আশা করি। হাবের সভাপতি আব্দুস ছোবহান ভূঁইয়ার সভাপতিত্বে সংবাদ সম্মেলনে হাব মহাসচিব এম শাহাদাত হোসেন তসলিম হজ প্যাকেজ ঘোষণা করে বলেন, বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় ঘোষিত প্যাকেজে বিমান ভাড়া ১ লাখ ২৮ হাজার টাকা, মক্কা ও মদিনায় বাড়ি ভাড়া ১ লাখ ৬ হাজার ৫০০ টাকা, সৌদি আরবে প্রদেয় বিভিন্ন সার্ভিস চার্জ ও পরিবহন ভাড়া ৪০ হাজার ৮৮২ টাকা ৫০ পয়সা, জমজমের পানি ২৬০ টাকা, অতিরিক্ত সার্ভিস চার্জ ও ভ্যাট ৩৫ হাজার ৪৩৭ টাকা ৫০ পয়সা, স্থানীয় সার্ভিস চার্জ ৮০০ টাকা, হজযাত্রীদের কল্যাণ তহবিল ২০০ টাকা, প্রশিক্ষণ ফি ৩০০ টাকা, চিকিৎসা কেন্দ্র ফি ১০০ টাকা, খাওয়া খরচ ৩০ হাজার, অন্যান্য খরচ ১ হাজার ২১৫ টাকা ও প্রাক-নিবন্ধন ফি ২ হাজার টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে।হাবের সিনিয়র সহসভাপতি মাওলানা ইয়াকুব শরাফতী, সহসভাপতি আবদুস সালাম আরেফে, যুগ্মমহাসচিব রুহুল আমিন মিন্টু, জনসয়যোগ সচিব রফিকুল ইসলাম, নির্বাহী সদস্য এম.এন এইচ খাদেম দুলাল, মুৃহাম্মদ আব্দুল কাদিরসহ নির্বাহী কমিটির নেতারা এসময় উপস্থিত ছিলেন।হাব মহাসচিব বলেন, হজ এজেন্সির কারণে হজযাত্রীরা দুর্ভোগে পড়েন না। মধ্যস্বত্বভোগী দালাল ও ফড়িয়াদের কাছে টাকা জমা দিয়েই তারা বিপদ পড়েন। বাড়ির পাশের লোকটির কাছে টাকা জমা দিয়ে তারা মনে করেন নিরাপদে হজযাত্রা করতে পারবেন। কিন্তু বাস্তবে পড়েন বিপাকে। মধ্যস্বত্বভোগীদের দৌরাত্ম্য বন্ধে ধর্ম মন্ত্রণালয় ও হাবের সম্মিলিত উদ্যোগ সর্বোপরি হজ গমনেচ্ছুদের সচেতন হতে হবে। সরকার কিছুটা বিমান ভাড়া কমানোর পর হাব থার্ড ক্যরিয়ারের দাবি থেকে সরে এসেছে কিনা- সাংবাদিকদেও প্রশ্নের জবাবে হাব মহাসচিব বলেন, আমাদের দাবির প্রেক্ষিতে বিমান ভাড়া কমানোর মধ্য দিয়ে দাবির যৌক্তিকতা প্রমাণিত হয়েছে। আমরা মনে করি হজযাত্রীদের আসা যাওয়ার বিমান ভাড়া স্বাভাবিক সময়ের ভাড়ার চেয়ে দ্বিগুনও হওয়া উচিত নয়। এখনো দ্বিগুনের চেয়েও বেশি। কারণ স্বাভাবিক সময়ে অনেক সময় বিমান আসা যাওয়ার ক্ষেত্রে সিট খালে থাকে। কিন্তু হজের সময় ৯৯%-এর বেশি ক্যাপাসিটি থাকে। ফলে বিমান ভাড়া এখনকার স্বাভাবিকের চেয়ে বড় জোর দেড়গুণ হওয়া উচিত। এছাড়া থার্ড ক্যারিয়ার চালুর মাধ্যমে হজযাত্রী পরিবহনকে উন্মুক্ত করার দাবি থেকেও হাব সরে আসেনি। আমরা চাই হজযাত্রী পরিবতন ওয়াইড হোক। অন্যান্য ক্যারিয়ারও আসুক। সৌদি এয়ারলাইন্সের হজের টিকিট হজ এজেন্সির মাধ্যমে বিক্রি না করার বিষয়ে তিনি বলেন, বিমানের মতো সৌদি এয়ারলাইন্সও যাতে হজের টিকিট সরাসরি হজ এজেন্সির কাছে বিক্রি করে তার জন্য সরকার প্রেসারাইজড করবে বলে আমরা আশা করি।তিনি বলেন, বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় প্রাক নিবন্ধনধারী হজ গমনেচ্ছুদের নিবন্ধন ১৭ ফেব্রুয়ারি থেকে শুরু হচ্ছে। নিবন্ধনের সময় প্রত্যেক হজগমচ্ছেুকে বিমানভাড়া বাবদ ১ লাখ ২৮ হাজার টাকা এবং সৌদি আরবে প্রদেয় বিভিন্ন সার্ভিস চার্জ ও পরিবহন ফি ১৪ হাজার ৬৪৫ টাকাসহ সর্বনিম্ন মোট ১ লাখ ৪২ হাজার ৬৪৬ টাকা জমা দিয়ে নিবন্ধন করতে হবে। তবে হজযাত্রীদের আগামী ২০ মার্চের মধ্যে প্যাকেজ মূল্যের সম্পূর্ণ টাকা অবশ্যই সংশ্লিষ্ট হজ এজেন্সিকে পরিশোধ করতে হবে।’হাব মহাসচিব জানান, বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় চলতি বছর সর্বনিম্ন প্যাকেজ হবে ৩ লাখ ৪৫ হাজার ৮০০ টাকা। সর্বোচ্চ প্যাকেজের কোনো নির্দিষ্ট অঙ্কের টাকা নির্ধারণ করা হয়নি। সুযোগ সুবিধামতো তিন থেকে চার ধরনের প্যাকেজ হতে পারে।

চলতি বছরের জন্য বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় এবার হজের সর্বনিম্ন খরচ জনপ্রতি ৩ লাখ ৪৫ হাজার ৮০০ টাকা নিধারণ করে প্যাকেজ ঘোষণা করেছে হজ এজেন্সিজ অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (হাব)। শনিবার রাজধানীর নয়াপল্টনের হোটেল ভিক্টোরীতে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এই প্যাকেজ ঘোষণা করা হয়।

সংবাদ সম্মেনে হাবের মহাসচিব এম. শাহাদাত হোসাইন তসলিম বলেন, হজে যেটুকু ভোগান্তি মধ্যস্বত্তভোগিদের কারণেই হয়, হজ এজেন্সির কারণে নয়। তিনি বলেন, সরকার এ বছর বিমান ভাড়া ১০ হাজার ১৯১ টাকা কমিয়ে হাবের দাবির যৌক্তিকতা প্রমাণ করেছে। এটা প্রশংসনীয় উদ্যোগ। তবে হাব মনে করে, হজযাত্রীদের বিমান ভাড়া স্বাভাবিক সময়ের দেড়গুণ হওয়া উচিত। তিনি আরো বলেন, বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের মতো সৌদি এরাবিয়ান এয়ারলাইন্সের হজযাত্রীদের টিকিটও সরাসরি হজ এজেন্সির কাছে বিক্রি করতে সরকার হস্তক্ষেপ করবে আশা করি।

হাবের সভাপতি আব্দুস ছোবহান ভূঁইয়ার সভাপতিত্বে সংবাদ সম্মেলনে হাব মহাসচিব এম শাহাদাত হোসেন তসলিম হজ প্যাকেজ ঘোষণা করে বলেন, বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় ঘোষিত প্যাকেজে বিমান ভাড়া ১ লাখ ২৮ হাজার টাকা, মক্কা ও মদিনায় বাড়ি ভাড়া ১ লাখ ৬ হাজার ৫০০ টাকা, সৌদি আরবে প্রদেয় বিভিন্ন সার্ভিস চার্জ ও পরিবহন ভাড়া ৪০ হাজার ৮৮২ টাকা ৫০ পয়সা, জমজমের পানি ২৬০ টাকা, অতিরিক্ত সার্ভিস চার্জ ও ভ্যাট ৩৫ হাজার ৪৩৭ টাকা ৫০ পয়সা, স্থানীয় সার্ভিস চার্জ ৮০০ টাকা, হজযাত্রীদের কল্যাণ তহবিল ২০০ টাকা, প্রশিক্ষণ ফি ৩০০ টাকা, চিকিৎসা কেন্দ্র ফি ১০০ টাকা, খাওয়া খরচ ৩০ হাজার, অন্যান্য খরচ ১ হাজার ২১৫ টাকা ও প্রাক-নিবন্ধন ফি ২ হাজার টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে।

হাবের সিনিয়র সহসভাপতি মাওলানা ইয়াকুব শরাফতী, সহসভাপতি আবদুস সালাম আরেফে, যুগ্মমহাসচিব রুহুল আমিন মিন্টু, জনসয়যোগ সচিব রফিকুল ইসলাম, নির্বাহী সদস্য এম.এন এইচ খাদেম দুলাল, মুৃহাম্মদ আব্দুল কাদিরসহ নির্বাহী কমিটির নেতারা এসময় উপস্থিত ছিলেন।

হাব মহাসচিব বলেন, হজ এজেন্সির কারণে হজযাত্রীরা দুর্ভোগে পড়েন না। মধ্যস্বত্বভোগী দালাল ও ফড়িয়াদের কাছে টাকা জমা দিয়েই তারা বিপদ পড়েন। বাড়ির পাশের লোকটির কাছে টাকা জমা দিয়ে তারা মনে করেন নিরাপদে হজযাত্রা করতে পারবেন। কিন্তু বাস্তবে পড়েন বিপাকে। মধ্যস্বত্বভোগীদের দৌরাত্ম্য বন্ধে ধর্ম মন্ত্রণালয় ও হাবের সম্মিলিত উদ্যোগ সর্বোপরি হজ গমনেচ্ছুদের সচেতন হতে হবে।

সরকার কিছুটা বিমান ভাড়া কমানোর পর হাব থার্ড ক্যরিয়ারের দাবি থেকে সরে এসেছে কিনা- সাংবাদিকদেও প্রশ্নের জবাবে হাব মহাসচিব বলেন, আমাদের দাবির প্রেক্ষিতে বিমান ভাড়া কমানোর মধ্য দিয়ে দাবির যৌক্তিকতা প্রমাণিত হয়েছে। আমরা মনে করি হজযাত্রীদের আসা যাওয়ার বিমান ভাড়া স্বাভাবিক সময়ের ভাড়ার চেয়ে দ্বিগুনও হওয়া উচিত নয়। এখনো দ্বিগুনের চেয়েও বেশি। কারণ স্বাভাবিক সময়ে অনেক সময় বিমান আসা যাওয়ার ক্ষেত্রে সিট খালে থাকে। কিন্তু হজের সময় ৯৯%-এর বেশি ক্যাপাসিটি থাকে। ফলে বিমান ভাড়া এখনকার স্বাভাবিকের চেয়ে বড় জোর দেড়গুণ হওয়া উচিত। এছাড়া থার্ড ক্যারিয়ার চালুর মাধ্যমে হজযাত্রী পরিবহনকে উন্মুক্ত করার দাবি থেকেও হাব সরে আসেনি। আমরা চাই হজযাত্রী পরিবতন ওয়াইড হোক। অন্যান্য ক্যারিয়ারও আসুক। সৌদি এয়ারলাইন্সের হজের টিকিট হজ এজেন্সির মাধ্যমে বিক্রি না করার বিষয়ে তিনি বলেন, বিমানের মতো সৌদি এয়ারলাইন্সও যাতে হজের টিকিট সরাসরি হজ এজেন্সির কাছে বিক্রি করে তার জন্য সরকার প্রেসারাইজড করবে বলে আমরা আশা করি।

তিনি বলেন, বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় প্রাক নিবন্ধনধারী হজ গমনেচ্ছুদের নিবন্ধন ১৭ ফেব্রুয়ারি থেকে শুরু হচ্ছে। নিবন্ধনের সময় প্রত্যেক হজগমচ্ছেুকে বিমানভাড়া বাবদ ১ লাখ ২৮ হাজার টাকা এবং সৌদি আরবে প্রদেয় বিভিন্ন সার্ভিস চার্জ ও পরিবহন ফি ১৪ হাজার ৬৪৫ টাকাসহ সর্বনিম্ন মোট ১ লাখ ৪২ হাজার ৬৪৬ টাকা জমা দিয়ে নিবন্ধন করতে হবে। তবে হজযাত্রীদের আগামী ২০ মার্চের মধ্যে প্যাকেজ মূল্যের সম্পূর্ণ টাকা অবশ্যই সংশ্লিষ্ট হজ এজেন্সিকে পরিশোধ করতে হবে।’

হাব মহাসচিব জানান, বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় চলতি বছর সর্বনিম্ন প্যাকেজ হবে ৩ লাখ ৪৫ হাজার ৮০০ টাকা। সর্বোচ্চ প্যাকেজের কোনো নির্দিষ্ট অঙ্কের টাকা নির্ধারণ করা হয়নি। সুযোগ সুবিধামতো তিন থেকে চার ধরনের প্যাকেজ হতে পারে।

About admin

Check Also

অজু শেষে কলেমা শাহাদাৎ পড়ার ফজিলত

নামাজের আগে অজু করা ফরজ। অজু ছাড়া নামাজ হবে না। মুসলমানের ১৩০ ফরজের মধ্যে শুধু …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *